Uncategorized

আয়কর কি? কেন এবং কখন আয়কর দিতে হবে?

আয়কর নিয়ে আমাদের বিভিন্ন মানুষের মনে বিভিন্ন রকমের প্রশ্ন রয়েছে। যেমন আমাদের মধ্যে আপনি এমন অনেককেই খুঁজে পাবেন। যারা মূলত এখন পর্যন্ত বলতে পারে না যে, আয়কর কি, কেন এবং কখন আয়কর দিতে হবে। হয়তোবা আপনিও এই বিষয় গুলো সম্পর্কে জানেন না। যে কারণে আপনি গুগলে সার্চ করেছেন যে, আয়কর কি (What is income tax in bd).  তো আপনার উদ্দেশ্যে একটা কথা বলব যে, আপনি একবারে সঠিক জায়গাতে চলে এসেছেন। কারণ আজকের এই আর্টিকেলে আমি আয়কর নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

আপনি যদি একটা পরিবারের কথা চিন্তা করেন। তাহলে আপনি দেখতে পারবেন যে, উক্ত পরিবারে যে কর্তা রয়েছে কিংবা এমন একজন ব্যক্তি রয়েছে যার অনেক টাকা ইনকাম হয়। এবং এই ব্যক্তিটি কিন্তু তার পরিবারের সকল খরচের ভার বহন করে থাকে। এবার একটু সরকারের দিকে লক্ষ্য করে দেখুন। যখন আপনি আপনার উপার্জিত অর্থের বিনিময়ে এবং নানাবিধ সুবিধা ভোগ করার কারণে সরকারকে নির্দিষ্ট পরিমাণ কর প্রদান করবেন। তখন তাকে বলা হবে আয় কর।

সহজ কথায় বলতে গেলে সরকার কর্তৃক উক্ত দেশে বসবাসকারী জনগণকে বাধ্যতামূলক এক প্রকার কর প্রধান করতে হয়। মূলত তাকে বলা হয়, আয়কর। আর এই আয়কর যেসব ব্যক্তি বর্গের উপর আরোপ করা হয়। মূলত সেই ব্যক্তিদের বলা হয় কর দাতা। আর একজন সাধারণ করদাতা হিসেবে আপনাকে অবশ্যই আয়কর কি এবং কখন এই আয়কর দেয়ার প্রয়োজন হয়। সে সম্পর্কে সঠিক তথ্য জেনে রাখা উচিত।

যেহেতু আজকের আর্টিকেলে আমি আয়কর নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। তাই চেষ্টা করবেন আজকের আর্টিকেল টি মনোযোগ সহকারে পড়ার। যদি আপনি আজকের পুরো আর্টিকেল টি মনোযোগ দিয়ে পড়ে থাকেন। তাহলে আমার বিশ্বাস যে, আজকের পরে আপনার ভেতরে আয়কর সম্পর্কিত কোন কিছু অজানা থাকবে না। তো চলুন এবার আলোচনা তে ফিরিয়ে নেওয়া যাক  

আয়কর কি?

সহজ কথায় বলতে গেলে আপনি একটি দেশের নাগরিক হওয়ার পরে উক্ত দেশে আপনি যে পরিমাণ অর্থ উপার্জন করবেন। এবং আপনি যে সেই দেশের নাগরিক হওয়ার কারণে বিভিন্ন প্রকার সুযোগ সুবিধা ভোগ করবেন। মূলত সেই নিমিত্তে আপনাকে দেশের সরকার কে এক ধরনের কর প্রদান করতে হয়। আর আপনি যে এই কর প্রদান করছেন, তাকে বলা হয়ে থাকে আয়কর। 

এখন হয়তো আপনার মনে একটি প্রশ্ন জেগে থাকতে পারে যে। একজন মানুষ যে আয়কর প্রদান করে। মূলত এই আয়কর প্রদান করার খাত গুলো কি কি। তো আপনি যদি সেই খাত গুলো সম্পর্কে জেনে নিতে চান। তাহলে আপনাকে নিজের আলোচনায় নজরে রাখতে হবে। কেননা আপনি যে সরকারকে কর প্রদান করবেন। সেই কর প্রদান করার জন্য বিভিন্ন প্রকারের খাত রয়েছে। যেমন:

  1. বেতনাদি।
  2. নিরাপত্তা জামানতের উপর সুদ।
  3. গৃহ সম্পত্তির আয়।
  4. কৃষি আয়।
  5. ব্যক্তিগত ব্যবসা এবং পেশার আয়।
  6. মূলধনী মুনাফা।
  7. অন্যান্য আয় এর উৎস।

প্রিয় পাঠক, যদি কখনো আপনার মনে এ ধরনের প্রশ্ন জেগে থাকে যে। কেন আপনি একজন নাগরিক হয়ে উক্ত দেশের সরকার কে আয়কর প্রদান করবেন। তাহলে আপনি জেনে রাখুন, উপরে আপনি সাত প্রকারের খাত দেখতে পারছেন। মূলত এই সাত প্রকারের খাতের জন্য আপনাকে সরকার এর নিকট আয়কর প্রদান করতে হয়।

আয়কর এর সীমা সম্পর্কে জেনে নিন

একটি দেশের সব ধরনের মানুষকে সমান আয়কর দেয়ার প্রয়োজন পড়ে না। বরং আপনার আয়কর কত হবে সেটা মূলত আপনার ইনকাম সোর্স এর উপর নির্ভর করে হয়। আর নিচে আমি এই আয়কর এর সীমা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আপনি এই আলোচনা থেকে জেনে নিতে পারবেন যে। আপনার আয় এর পরিমাণ কত হলে আপনাকে সরকারের নিকট আয়কর প্রদান করতে হবে।

  1. যদি আপনি কোন একজন সাধারন মানুষ হয়ে থাকেন। এবং একজন সাধারণ মানুষ হওয়ার পরেও আপনার বার্ষিক ইনকাম যদি দুই লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকার বেশি হয়। সেক্ষেত্রে কিন্তু আপনাকে আয়কর রিটার্ন জমা দেয়ার প্রয়োজন পড়বে।
  2. একজন মহিলার ক্ষেত্রে উক্ত মহিলার বয়স যদি ৬৫ বছরের বেশি হয়। এবং তার ইনকাম যদি তিন লাখ টাকা অতিক্রম করে। সেক্ষেত্রে কিন্তু উক্ত মহিলাকে আয়কর প্রদান করতে হবে।
  3. কোন একজন প্রতিবন্ধী ব্যক্তির যদি বাৎসরিক আয় ৪ লাখ টাকার বেশি হয়। সেক্ষেত্রে উক্ত ব্যক্তিকে আয়কর দিতে হবে।
  4. যদি একজন ব্যক্তি মুক্তিযোদ্ধা হয়ে থাকে ।এবং উক্ত ব্যক্তির বাৎসরিক আয় যদি ৪ লাখ ২৫ হাজার টাকার বেশি হয়। সেক্ষেত্রে কিন্তু উক্ত ব্যক্তি কে আয়কর প্রদান করতে হবে।

গতবছর করোনা ভাইরাসের কারণে এই আয় করার ক্ষেত্রে কিছুটা সহনশীল করা হয়েছে। কেননা উক্ত বছরে মানুষের আয় এর পরিমাণ অনেকাংশে কমে গিয়েছিল। যার কারণে ২০২০ থেকে ২০২১ অর্থবছরের আয়করের জন্য কিছুটা সময় প্রদান করা হয়েছে।

কাকে বাধ্যতামূলক আয়কর প্রদান করতে হবে? 

প্রিয় পাঠক, উপরের আলোচনা থেকে আপনি জানতে পেরেছেন যে আয়কর কাকে বলে। এর পাশাপাশি আমি আপনাকে ধারণা দেয়ার চেষ্টা করেছি যে কেন আপনার আয়কর দেয়ার উচিত। এবং সবশেষে আপনি জানতে পেরেছেন যে আয়করের সীমা পর্যন্ত। তো এই বিষয় গুলো জানার পাশাপাশি আপনাকে আরও একটি বিষয় সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। আর সেটি হল যে, এমন কোন ধরনের মানুষের রয়েছে। যে মানুষ গুলো কে বাধ্যতামূলক আয়কর প্রদান করতে হবে। চলুন এবার তাহলে সে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জেনে নেওয়া যাক।

  1. যখন আপনি কোন কোম্পানি বা কোন গ্রুপ কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদের সাথে যুক্ত থাকবেন।
  2. আপনি যদি কোন সরকারি, আধা সরকারি অথবা স্বায়ত্তশাসিত কোন সংস্থা কিংবা নির্দিষ্ট কোন স্থানীয় সরকার এর দরপত্রে অংশগ্রহণকারী হয়ে থাকেন।
  3. যখন আপনি কোন পৌরসভা কিংবা সেটি কর্পোরেশন এর নির্দিষ্ট কোন পদে যুক্ত থাকবেন, কিংবা উক্ত সংসদ সদস্যে প্রার্থী হবেন।
  4. আপনি যদি কোন বণিক বা নির্দিষ্ট কোন শিল্প বিষয়ক চেম্বার কিংবা ব্যবসায়িক সংঘ অথবা সংস্থার সাথে যুক্ত থাকেন।
  5. যখন আপনি কোন রাজস্ব বোর্ডের নিবন্ধিত আয়কর এর পেশাজীবী হিসেবে যুক্ত থাকবেন।

পাঠক, আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ রয়েছেন। যারা মূলত এখন পর্যন্ত জানে না যে, নির্দিষ্ট কোন কোন ব্যক্তি গুলোকে আয়কর প্রদান করতে হয়। তো এই অজানা মানুষ গুলো কে জানিয়ে দেওয়ার জন্য মূলত উপরে পাঁচটি পয়েন্ট উল্লেখ করা হয়েছে। আর আপনি যদি এই পাঁচটি পয়েন্টের মধ্যে অন্তর্ভুক্ত থাকেন। তাহলে অবশ্যই আপনাকে আয়কর প্রদান করতে হবে।

আয়কর নিয়ে কিছু কথা

বর্তমান সময়ে আপনি এমন অনেক মানুষ কে খুঁজে পাবেন। যারা মূলত এখন পর্যন্ত জানে না যে, আয়কর কি। এবং কেন আমাদেরকে আয়কর দেয়ার প্রয়োজন হয়ে থাকে। 

তো যে মানুষ গুলো এই বিষয় সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানেনা। সেই মানুষ গুলো কে জানিয়ে দেওয়ার জন্য আজকের এই আর্টিকেলটি লেখা হয়েছে। কারণ আজকের এই আর্টিকেলে আমি আয়কর সম্পর্কিত প্রয়োজনীয় তথ্য গুলো কে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি।

Mr Roy

Hello Friend, আমার নাম, নিরন্জন রায়। আমি একজন বাংলা কন্টেন্ট রাইটার। দীর্ঘদিন ধরে এই পেশায় যুক্ত আছি। আমি চেস্টা করি নিজের জানা বিষয় গুলো কে অন্যের সাথে শেয়ার করার। আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন.... https://www.facebook.com/fx.nironjonbd

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button