ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার

ডিজিটাল মার্কেটিং করে কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং করা যায়

যেহেতু বর্তমানে ইন্টারনেট এর যুগ, সেহেতু আমরা কম বেশি সবাই ইন্টারনেটের সাথে সংযুক্ত আছি। আর আপনি যদি ইন্টারনেটের সাথে সংযুক্ত থাকেন, তাহলে আপনি অবশ্যই কোনো না কোনো সময় ডিজিটাল মার্কেটিং এর কথা শুনে থাকবেন। তো এই ইন্টারনেট জগতে কোন একটি প্রতিষ্ঠানের নির্দিষ্ট কোন পণ্য কে অনেক মানুষের নিকট প্রচার করার মাধ্যম কে বলা হয়ে থাকে ডিজিটাল মার্কেটিং (Digital Marketing). বর্তমান সময়ে বিশ্বের জনপ্রিয় কোম্পানি গুলো তাদের প্রোডাক্ট প্রমোশন করার জন্য এই ধরনের ডিজিটাল মার্কেটিং এর ব্যবহার করে থাকে।

আজকের এই গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেলের মাধ্যমে আমি আপনাকে জানিয়ে দেয়ার চেষ্টা করব যে, ডিজিটাল মার্কেটিং কাকে বলে। এর পাশাপাশি আমাদের মধ্যে এমন অনেক মানুষ রয়েছেন, যারা মূলত জানতে চায় যে ডিজিটাল মার্কেটিং করে কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং করা যায় । তো আপনি চাইলে এই ডিজিটাল মার্কেটিং করার মাধ্যমে খুব সহজেই ফ্রিল্যান্সিং করতে পারবেন। আর ফ্রিল্যান্সিং কে  সঠিক ভাবে কাজে লাগাতে পারলে। আপনি এই ফ্রিল্যান্সিং এর মাধ্যমে অনলাইন ইনকাম করতে পারবেন।

তো আপনি যদি জানতে চান যে, ডিজিটাল মার্কেটিং কাকে বলে এবং ডিজিটাল মার্কেটিং করে কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং করা যায়। তাহলে আজকের এই আর্টিকেল টি আপনার জন্য অনেক বেশি হেল্পফুল হবে। তাই এই ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য জানার জন্য অবশ্যই আজকের আর্টিকেল টি মনোযোগ দিয়ে পড়ার চেষ্টা করবেন। তাহলে আর দেরি না করে চলুন সরাসরি মূল আলোচনা তে ফিরে যাওয়া যাক।

ডিজিটাল মার্কেটিং কি?

যখন কোন একটি নতুন কোম্পানি বিভিন্ন প্রোডাক্ট তৈরি করে। তখন সেই কোম্পানি তে তৈরি হওয়া প্রোডাক্ট সম্পর্কে মানুষ তেমন কিছু জানতে পারে না। এবং যতক্ষণ পর্যন্ত একটি নতুন কোম্পানির প্রোডাক্ট সম্পর্কে মানুষ কোন কিছু জানতে পারবে না। ততক্ষণ পর্যন্ত ওই কোম্পানির প্রোডাক্ট গুলো আশানুরূপ বিক্রি হবে না। আর সে কারণেই মূলত একটি কোম্পানি তার কোম্পানি তে উৎপাদিত বিভিন্ন পণ্যের বিজ্ঞাপন প্রচার করে।

See also  বাংলাদেশ থেকে অনলাইনে আয় করার সেরা উপায় ২০২২

তবে এই বিজ্ঞাপন প্রচার করার দুটি মাধ্যম রয়েছে। একটি হলো অফলাইন মাধ্যম এবং আরেকটি হলো অনলাইন মাধ্যম। আপনি চাইলে অফলাইন পদ্ধতি অনুসরণ করে আপনার পণ্যের প্রচার করতে পারবেন। কিন্তু যখন আপনি আপনার কোম্পানি তে উৎপাদিত কোন পণ্যের প্রচার ইন্টারনেট প্ল্যাটফর্মে করবেন। তখন সেই প্রচার করার মাধ্যম কে বলা হবে, ডিজিটাল মার্কেটিং।

যেমন ধরুন, আপনার একটি মোবাইল শপ রয়েছে। এখন আপনি আপনার দোকানে থাকা মোবাইল গুলো সম্পর্কে বিভিন্ন ধরনের কাস্টমারদের কে জানিয়ে দিতে চান। সে ক্ষেত্রে আপনি একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করলেন। এবং সেই পেজে প্রতিনিয়ত আপনার দোকান এবং দোকানে থাকা মোবাইল গুলো সম্পর্কে বিভিন্ন মানুষকে জানিয়ে দেওয়ার জন্য প্রচার করলেন। মূলত এই পদ্ধতিকে বলা হয়ে থাকে, ডিজিটাল মার্কেটিং।

ডিজিটাল মার্কেটিং করে কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং করা যায়?

উপরের আলোচনা থেকে আপনি জানতে পারলেন যে, ডিজিটাল মার্কেটিং কাকে বলে। আশা করি এই বিষয়টি আপনি খুব ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন। তবে এখন আপনি বেশ কিছু মানুষকে খুঁজে পাবেন, যাদের মনে একটি প্রশ্ন বারবার ঘুরপাক খেয়ে থাকে। আর এই প্রশ্নটি হল, ডিজিটাল মার্কেটিং করে কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং করা যায় । আমরা সবাই জানি যে ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা আয় করা সম্ভব। তবে যারা মূলত ডিজিটাল মার্কেটিং এর সাথে যুক্ত, তারা আসলে কিভাবে আয় করতে পারবে।

তবে এই প্রশ্নের উত্তরটি আমি একটু বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করব। আসলে ফ্রিল্যান্সিং থেকে টাকা ইনকাম করা যায়। এ সম্পর্কে আমরা কম বেশি সবাই জানি। তবে আপনি যদি ফ্রিল্যান্সিং করতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে এই ডিজিটাল মার্কেটিং সেক্টরে নিজেকে দক্ষ হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। কেননা আজকের দিনে ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম গুলোতে অনেক প্রতিযোগিতা রয়েছে। এখন আপনি যদি ডিজিটাল মার্কেটিং করেন। তাহলে আপনার এই মার্কেটিং প্রক্রিয়া তে সৃজনশীলতা থাকতে হবে।

See also  ফ্রিল্যান্সিংয়ে কোন কোন কাজের ভালো চাহিদা আছে জেনে নিন

আর আপনার মধ্যে যদি এই ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে যথেষ্ট পরিমাণ দক্ষতা থাকে। তাহলে আপনি নিশ্চিন্তে ফ্রিল্যান্সিং করে আয় করতে পারবেন। আর সেজন্য আপনাকে বিভিন্ন ধরনের ফ্রিল্যান্সিং প্ল্যাটফর্ম গুলোতে নিয়মিত একটিভ থাকতে হবে। এবং সেই প্ল্যাটফর্ম গুলোতে যেসব ডিজিটাল মার্কেটিং এর জব পাবলিশ করা হয়। সেই জব গুলোতে আপনাকে এপ্লাই করতে হবে।

অথবা আপনি চাইলে ফ্রিল্যান্সিং করার পাশাপাশি বিভিন্ন লোকাল জব করতে পারবেন। কেননা সময়ের সাথে সাথে এখন প্রতিনিয়ত নতুন নতুন কোম্পানির উদ্ভব হচ্ছে। এবং এই কোম্পানি গুলো তাদের উৎপাদিত পণ্যের প্রচার করার জন্য অনলাইন জগতকে বেছে নিচ্ছে। আর এই সুযোগ কে কাজে লাগিয়ে আপনি আপনার ডিজিটাল মার্কেটিং এর দক্ষতাকে সফল করতে পারবেন। কেননা এই ধরনের লোকাল জব করার মাধ্যমেও ডিজিটাল মার্কেটিং থেকে আয় করা যায়।

কিভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং করা যায়?

উপরের গুরুত্বপূর্ণ আর আলোচনা থেকে আপনি জানতে পারলেন যে, ডিজিটাল মার্কেটিং কি। এবং ডিজিটাল মার্কেটিং করে কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং করা যায় । তো আশা করি উপরের আলোচিত এই বিষয় গুলো সম্পর্কে আপনার একটা পরিষ্কার ধারণা চলে এসেছে। তবে এই দুটি বিষয় জানার পাশাপাশি আপনাকে আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে জেনে নিতে হবে। আর সেই বিষয়টি হলো একজন মানুষ কিভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং করতে পারবে। মূলত এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর মধ্যে আর কি কি কাজ হয়। চলুন এবার তাহলে সে সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

প্রত্যেকটি কাজের নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম থাকে। ঠিক তেমনি ভাবে আপনি যদি ডিজিটাল মার্কেটিং করতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে সেই নিয়ম গুলো মেনে চলতে হবে। আর আপনি যদি ডিজিটাল মার্কেটিং করতে চান। তাহলে প্রথমত আপনাকে প্লাটফর্ম বেছে নিতে হবে। অর্থাৎ আপনি ফেসবুকে মার্কেটিং করবেন! নাকি ইউটিউবে মার্কেটিং করবেন, এই বিষয় গুলো আপনাকে নির্ধারণ করে নিতে হবে। আর যখন আপনি এরকম প্লাটফর্ম নির্ধারণ করবেন। তারপরে আপনাকে পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করতে হবে।

See also  অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি এবং এফিলিয়েট মার্কেটিং গাইডলাইন বিস্তারিত

ডিজিটাল মার্কেটিং করার জন্য প্ল্যাটফর্ম নির্ধারণ করার পরে আপনাকে নির্ধারণ করতে হবে যে, আপনি আসলে পণ্যের ভিডিও মার্কেটিং করতে চান, নাকি শুধুমাত্র টেক্সট কনটেন্ট এর মাধ্যমে মার্কেটিং করতে চান। যেমন ধরুন, আপনি যদি ইউটিউবে আপনার কোন প্রোডাক্ট এর মার্কেটিং করতে চান। তাহলে অবশ্যই আপনাকে ভিডিও ফুটেজ ব্যবহার করতে হবে। ঠিক তেমনি ভাবে আপনি যদি ব্লগ কিংবা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে মার্কেটিং করতে চান। তবে আপনি শুধুমাত্র টেক্সট কনটেন্ট এর ব্যবহার করলেই হবে।

তবে আপনি যে কোন প্লাটফর্মে যে কোন পণ্যের ডিজিটাল মার্কেটিং করার কথা ভাবুন না কেন। আপনাকে অবশ্যই মানসম্মত কনটেন্ট এর ব্যবহার করতে হবে। কেননা কন্টেন্ট হলো ডিজিটাল মার্কেটিং এর মূল অংশ। আর আপনি যদি কোন প্রকার কনটেন্ট এর ক্ষেত্রে অবহেলা প্রকাশ করেন। তাহলে কিন্তু আপনার মার্কেটিং প্রক্রিয়াতে ব্যাঘাত ঘটবে।

আমাদের কিছু কথা

প্রিয় পাঠক, আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা মূলত ডিজিটাল মার্কেটিং করে টাকা আয় করতে চান। আর সেই মানুষ গুলোর মনে প্রতিনিয়ত একটি প্রশ্ন ঘুরপাক খায়। আর সেটি হল যে, ডিজিটাল মার্কেটিং করে কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং করা যায়। মূলত আজকের আর্টিকেলে আমি এই বিষয়টি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি। আশা করি এই গুরুত্বপূর্ণ আর্টিকেল থেকে আপনি জানতে পারবেন যে, ডিজিটাল মার্কেটিং করে কিভাবে ফ্রিল্যান্সিং করা যায়

আপনি যদি অনলাইন ইনকাম সম্পর্কিত আরো অজানা তথ্যগুলোকে খুব সহজ ভাষায় জেনে নিতে চান। তাহলে অবশ্যই আমাদের সাথে থাকবেন। আর আর্টিকেল এর এই পর্যন্ত আসার জন্য আপনাকে জানাই অশেষ ধন্যবাদ।

Mr Roy

Hello Friend, আমার নাম, নিরন্জন রায়। আমি একজন বাংলা কন্টেন্ট রাইটার। দীর্ঘদিন ধরে এই পেশায় যুক্ত আছি। আমি চেস্টা করি নিজের জানা বিষয় গুলো কে অন্যের সাথে শেয়ার করার। আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন.... https://www.facebook.com/fx.nironjonbd

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button